এবারের আমিষের মজায় হবে লঙ্কাকাণ্ড। হনুমানের লঙ্কাকাণ্ড নয়, শুওরের!

শুওরের মাংস এমনিতে আমার খুব প্রিয় না। তা হলে কি হবে, শুওরের লঙ্কাকাণ্ড রান্নাটা এতই সুস্বাদু, এইটা সুযোগ পেলেই করে ফেলি। হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন, এই রান্না করতে আপনার লাগবে শুওরের মাংস আর রাশি রাশি লঙ্কা! এছাড়া আর লাগবে -

রসুন কুচি – ৪-৫ কোয়া
গোটা ধনে – দুই চা-চামচ
গুঁড়ো হলুদ – এক চা-চামচ
কর্ন ফ্লাওয়ার – তিন চা-চামচ
পেঁয়াজ কুচি – দুটো বড় পেঁয়াজ
কম ঝাল কোনো লঙ্কা (আমি ব্যবহার করি চাইনিজ গ্রীন পেপার) – ৫-৬টা (না পেলে একটা ক্যাপ্সিকাম)
চিনি – দুই চা-চামচ
লেবুর রস – এক চা-চামচ
নুন – পরিমাণ মত
সাদা তেল – পরিমাণ মত

এই সমস্তের সঙ্গে দেবার জন্য বোনলেস শুওরের মাংস এক কেজি, আর গোটা দশেক কাঁচালঙ্কা। না না, ভয় পাবেন না, যতটা ভয়ঙ্কর মনে হচ্ছে ততটাও হবেনা। বাকিটা পড়েই দেখুন!

প্রথমে শুওরের বোনলেস মাংসটা ছোট ছোট পিস করে কেটে রাখুন। ধনে একটু শুকনো খোলায় ভেজে গুঁড়ো করে নিন। ধনেগুঁড়ো, হলুদগুঁড়ো আর কর্নফ্লাওয়ার একসাথে মিশিয়ে মাংসের গায়ে মাখিয়ে রাখুন। প্যানে সাদা তেল গরম করে রসুন আর পেঁয়াজটা লালচে করে ভেজে নিন।  এরপর প্যানের মধ্যে দিয়ে দিন ওই মাংসটা। নাড়তে থাকুন। শুকনো হয়ে এলে লেবুর রস দিন, প্রয়োজনে অল্প জল। নুন চিনিও দিয়ে দেওয়া যেতে পারে। ঢাকা দিয়ে অল্প আঁচে সিদ্ধ করুন। প্রয়োজন মত মাঝেমাঝে সামান্য জল দেওয়া যেতে পারে।

অন্য একটি পাত্রে অল্প তেলে ৫ মিনিট ভেজে নিতে হবে সমস্ত লঙ্কা (কাঁচালঙ্কা আর কম-ঝালের লমকা)। লঙ্কা একটু কচকচে থাকতে নামিয়ে নিতে হবে। ওদিকে মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে এবং তেল আলাদা হয়ে গেলে সবার শেষে ওপরে দিয়ে দিন লঙ্কা গুলো। একটু ভাল করে মিশিয়ে আরও মিনিট খানেক বসিয়ে রেখে নামিয়ে নিন। পাত্রের ওপর ঢাকা দেওয়াই থাকুক কিছুক্ষণ, যাতে লঙ্কার ফ্লেভারটা ভাল করে ছড়িয়ে যায় রান্নার মধ্যে।

এরপর… না না, গরম গরম খেয়ে ফেলবেন না। বরং ঠাণ্ডা হলে সোজা চালান করে দিন ফ্রিজে। পরের দিন গরম করে ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন। একদিন ফ্রিজে থেকে মজে আরো সুস্বাদু হবে।

বিশেষ সতর্কীকরণ – ফ্রিজ থেকে বার করে গরম করার জন্য ওই লঙ্কা শুদ্ধু জল দিয়ে ফোটাবেননা যেন। সবচেয়ে ভাল হয় শুকনো অবস্থায় মাইক্রোওয়েভে গরম করে নিলে। এই নির্দেশ না মানার দরুণ জিভে, পেটে, কিম্বা পরের দিনের টয়লেট পেপারে আগুন লাগলে সে দোষ আমার নয়!!

লঙ্কাকাণ্ড কেমন লাগল জানার জন্য মুখিয়ে থাকলাম!

 

আমিষের মজা (২) – শুওরের লঙ্কাকাণ্ড
  • 0.00 / 5 5
0 votes, 0.00 avg. rating (0% score)

Comments

comments