ইচ্ছে করে ফেলে আসা ছেঁড়া খাতার পাতা উল্টে লিখে রাখি,

 

“I find myself in meaningless relationships in which I deliver false promises and empty words with a devilish smile, with no guilt and with complete disregard. In a whim I fall in lust and in another I forget who, what and where.
But there will be a time when my heart would ache for love, when my eyes would shed a tear when it was not to be. I would wait, may be, perhaps I would meet someone that would make my heart skip.”

আমার চারপাশে ছড়িয়ে থাকে কিছু না বলা কথা,কিছু অবলুপ্ত অঙ্গীকার আর ফেলে আসা সম্পর্কের কিছু অবরুদ্ধ উল্লাস.
শুধু কবিতার জন্য কি কবিতার সৃষ্টি হয় ? হতে পারে?….
কয়েকটা ছবির জন্ম হয়….
দু হাত ছড়িয়ে মাঠের ওপর উপুড় শুয়ে আছে একটা বাচ্চা ছেলে.অবিশ্রান্ত বৃষ্টির মধ্যে দিয়ে ঝাপসা দেখছে পৃথিবীটাকে. ছেলেটা ঘাসের গোড়া চিবুচ্ছে না ঘাস গুলোকে উপড়ে ফেলছে মাটি থেকে, বোঝা কার সাধ্যি! সবুজে মাখামাখি তার সাদা জামা , এলোমেলো ঝাঁকড়া চুলে লেগে আছে অগোছালো ঘাসের টুকরো…স্কুলের মোজাতেও মাটির আঁকিবুঁকি….বৃষ্টি ভেজা ঘাসের গন্ধ টা আলাদা…তবু তাইই সই…বুক ভরে নিয়ে উড়বার জন্য তৈরী হচ্ছে সে…অনেক দূরে, যেখানে মাঠ মিশেছে আকাশের গায়ে ,সেখানে একটা অদ্ভুত লালচে রঙ…ওটা কি আকাশের পূর্বদিক নাকি পশ্চিম….আজ আর সেটা বুঝতে পারি না…রতন আজ আর মাঠের আলো গুলো জ্বালানোর প্রয়োজন মনে করে নি…হটাত দূরে একটা পরিচিত ছায়া দেখে চমকে উঠি…উবু হয়ে বসা দু হাঁটুর মাঝে মাথা নামিয়ে চুপচাপ ভিজছে একটা ছেলে…একা…তার অবিন্যস্ত চুলগুলো শান্ত হয়ে লেপ্টে আছে গালে মাথায়..সবখানে…হেরে যাওয়ার কষ্ট কি??…ফিরিয়ে দিচ্ছে ঘাস গুলোকে কিছু?
কল্পনার ফানুস টা কখনো তো কিছু ফেরত চায়নি ছেলেটার থেকে…বরং না চাইতেই দিয়েছে অনেক কিছু…হরেক রকম অনুভূতি…রংবেরং এর কিছু অমলিন মুহূর্ত…তবু কেন এমন হলো?…
এত রাগ অভিমান প্রতিশোধ…..লুকিয়ে ছিল?…নির্ভেজাল ওই হাসির আড়ালে?….

একটা প্রশ্ন
  • 0.00 / 5 5
0 votes, 0.00 avg. rating (0% score)

Comments

comments