হাসিখুশি পায়রারা জানিয়েছে 

এমাসেই চলে যাবে ঘুলঘুলি ছেড়ে ;

চিলেকোঠা আর নাকি নিরাপদ নয় ।।

ছেলেধরা শিকরারা উঁকিঝুঁকি দিলে 

জল ভরা ঘড়া ভাঙে কপোতীর বুকে ।

নগরের দুর্মতি চোখ খোলে, মাথা তোলে ;

চকচকে কালো মণি সাঁতরায় প্লাজমার স্রোতে ,

গাঢ় হলুদ সেন্স অফ হিউমার ;

তুরুমতি ঠিকঠাক বুঝে নেয় দায়িত্বভার ।।

পোষা দুর্গতি ডানা  মেলে উড়ে যায় নির্দেশে,

ফিরে আসে, পায়ে গাঁথা সবুজের দেহ ;

রূপকথা বই থেকে সেই চন্দনা ,

নখে ধরে পেয়ারাটা দেখিয়ে

যে বলেছিল – কতো ছোট পৃথিবীটা , কনডেন্সড ।।

 শরীরের সহস্র বীজে আছে আরও নিযুত পৃথিবী ,

প্রজন্ম, প্রত্যাশা কোটি- কোটি ।।

নতুণ আইডিয়া পাশ ফিরে শুয়ে নিথর চন্দনায় ,

আইডিওলজি টুপি খুলে বলে বিদায় ,

মুখে স্মিত হাসি ।।

বিলুপ্তির ভয়ে ভুলেও পৃথিবীর কথা বলে না

কোনও 'প্যাসেঞ্জার ' ;

ভাঁড়ারে এখনো বেঁচে স্ট্যান্ডিং ওয়েভ ,

শোনা যায় হাওয়া চলাচল ,

ভরাট হতে  এখনো অনেকটা বাকি ।।

বাড়তি দানাশস্য খুঁজে চলে, ঘাড় গুঁজে ,

 গ্রাস- রুট বিহগের দল ।।

শীতকাল খুব দূরে নেই ,

পরিব্রাজন বড় স্নায়ুক্ষয়ী পথ ,

বাড়ি বয়ে এলো বলে ডারউইন্'স প্লে ;

 শেষ কথা – বেঁচে থেকো সুধীবৃন্দ খুব সাবধানে ।।  

 

====== সমাপ্ত ===========

দুর্বোধ্য ৮

দুর্বোধ্য ৯
  • 5.00 / 5 5
1 vote, 5.00 avg. rating (91% score)

Comments

comments