নত শির
………………………
গাছের পাতায় মেঘ কেটে গিয়ে সিক্ত সূর্যের আলো
জেনো সবুজ-হলুদ ফুল ফুটে আছে নীলিমায় !
নির্লিপ্ত আমার দু চোখে 
কুহেলিকা সরিয়ে রাস্তার দিকে চেয়ে আছি
সারি সারি লোক, নারী ও পুরুষ,বৃদ্ধ
পুষ্পরথে প্রয়োজনীয় যুবক-যুবতীরা নিয়মিত
আসছে চলেও যাচ্ছে…।
আমার চার দেওয়াল কারাগার, 
হাঁ করে গিলতে চায়- 
আমার গানের ক্লাসের সেই পুরাতন দাগ গুলো,
ভারি ভারি লোহার আসবাব পত্র যত
জোর করে টেনে ধরেছে আমাকে !
বিন্দু বিন্দু সংখ্যা জমছে আমার আয়নায় এবং ধীরে ধীরে -
আমিতে রূপান্তরিত হচ্ছে গণিত…
পুনরায় বিন্দু বিন্দু কবিতা।
বিন্দুতে সিন্ধু ছিল না কোনদিন,আজও…
আজও সমুদ্র কেবলই ষাঁড়ের।

বাতাস সশব্দে বন্ধ করে দিলো জানালা…
আমি কি চিন্তায় স্বাধীন,
ল্যাজ লুকিয়ে রোজ চাঁদ দেখি ?
আমাকে ঘিরে ভূতকাল, আঙ্গুলে ক্যারিকেচার করে,
আমি হাসতে পারছি না,
কাঁদতে পারছি না ।
মেঘ কেটে যাচ্ছে ঠিক-ই
গাছে গাছে পাখি ফিরছে তাও দেখতে পাচ্ছি…
কিন্তু ,
আমাদের গাছ নেই,
আমাদের রোদফুল নেই,
আমাদের আকাশ নেই,
মেঘ কুয়াসার প্রশ্নই ওঠে না।
অবসাদ হীন রঙ্গিন বোতলে আমার শহর
আমাকে প্রতিবাদ হীন রেস্তোরাঁয় সুস্বাদু ডিশ সার্ভ করে,
আমি মাথা গুঁজে গ্লাস উল্টে ফেলি রোজ…
অনেকে আমার মতো বাসন্তী রঙ যাদের কপালে
তারা হাততালি দেয় !

মাথা নিচু করে জোকারের মতো হেসে উঠি
আমার শিরদাঁড়া ধনুক হয়ে গেছে।

লেখ কবিতা লেখ মাথা নিচু করে… 

                            – ২৩.০৯.৩০১৩
                             - দুপুর ১ টা ০৫

নত শির
  • 0.00 / 5 5
0 votes, 0.00 avg. rating (0% score)

Comments

comments