পুলিস কমিসানারেট জানত না যে লোকসভা নির্বাচনের আগে ওই নবুদার মত 'পাগলাথেরিয়ামকে' কে Lock Up আটকে রাখাটা কতটা ঝক্কির হতে পারে। নবুদা রাজনৈতিক বন্দী তাই তাকে আলাদা সেল দেওয়া হবে এরকমই এক্সপেক্ট করেছিল সে। তার বদলে প্রথম রাতে নবুদাকে দুটো সাইকেল চোর , তিনটে পেটো স্পেসালিস্ট আর একটা রেপিস্টের সাথে এক জায়েগায়ে মল মুত্রের দুর্গন্ধের মধ্যে পুরে দেওয়া হলো। ঢুকতেই নবুদাকে চিনতে পারল এক সাইকেল চোর , "দাদা আপনিই তো সেই যে পূবপাড়ায়ে দোলের দিন দুই জগ ভাং এক দমে খেয়েছিলেন, তাই না ?" নবুদা এক লাথখোর বদনাম শায়রের মত sine কার্ভে হেসে, কুকীর্তিময় স্বকীর্তির স্বীকৃতি গ্রহণ করলো আর বেওয়ারিশ আর্মির রেফারেন্সের কারণে কিছুক্ষণের মধ্যেই বেশ সম্মান টম্মান আদায় করে ফেলল। একটা পেটো স্পেসালিস্ট কিনা আবার হুলোর বন্ধু হয়, তাসের পার্টনার ! সে ততক্ষনাত বসার জন্য বাসী আনন্দবাজার আর entertained হওয়ার জন্য পুরনো আনন্দলোকও অফার করলো নবুদাকে । লিমিটেড রিসোর্সে কৃতজ্ঞতাজ্ঞাপন আর কি! রেপিস্টটাও একবার বিড়ি সেধেছিল, নবুদা সেটা নিয়েওছিল তবে তার আসল পরিচয় পাওয়ার পর থেকে শুধু তাকে ধোঁয়া ছাড়তে ছাড়তে দেখে আর ক্ষণে ক্ষণে জিজ্ঞেস করে ,"এত্তখানি যখন দাড়ায়ে তা জাপানি তেলের মডেল হলি না কেন?"

রাতে সবাই লিট্টি চোখা খেয়ে ঘুমিয়ে পরলেও , নবুদা হ্যাবিচুয়াল ইন্সম্যানিয়াক তাই আন্দলোকটা উল্টে পাল্টে দেখছিল। হটাত পাতা ওল্টাতে গিয়ে মাঝামাঝি নাগাদ চোখে পড়ল 'মহানায়িকার' মহামৃত্যুর মহা করুণ সব পাতা জোড়া ছবি ! মুনমুন সেন কে মুখ্যমন্ত্রী স্বান্তনা দিচ্ছেন , নায়ক দেব সব চ্যালেঞ্জ হারিয়ে থমকে দাড়িয়ে আছেন , সন্ধ্যা রায় চোখের জল মুচ্ছেন । চকচকে দেখে মাঝখানের এই পাতাগুলো ছিড়ে নিয়ে পকেটে রেখে দিল নবুদা , কাল যদি পায়খানায় জল না থাকে পাতা দিয়েই কাজ সারবে বলে। পরের দিন সকালবেলায়ে মেজবাবুকে থানায়ে ঢুকতে দেখেই নবুদা চিত্কার শুরু করলো ,"স্যার এটা inhuman , Guantanamo Bay তেও এরকম হয়নি কোনদিন। পলিটিকাল বন্দীর সাথে এরকম ব্যবহার! আমি মানবধিকার কমিশনে যাব, প্রেস মিডিয়া সব্বাইকে ডাকব!! " মেজবাবু 'বোঝে কম মারে বেশি ' গোছের মানুষ , নবুদার মুখে এই সব ইংরেজি বাংলা মেলানো খটমট শব্দ গুলো শুনে একটু বমকালেও, খবরের কাগজ থেকে চোখ না সরিয়েই ব্যাপারটাকে বেশ ভালো মত ইগনোর করে দিলেন। খানিকক্ষণ পরে বড়বাবু ঢুকলো, সাথে মেনিদির ভাই জগা। জগার দাবি arrested তিনজন পেটো স্পেসালিস্টরা পলিটিকাল ভিকটিম , আদপে তারা তার দলের (মানে লবির) সচ্চরিত্র ও আদর্শবান ক্যাডার (মানে কর্মী) !

বড়বাবু অন্ধা কানুনের মতন নিরুত্তাপ ভাবে নির্বাচনোত্তর পরিস্থিতিতে তার কি দাবি দাওয়া তা জগাকে জানালো। জগাও নির্বাচনের পর সেই পাওনা গন্ডা সুদসমেত মিটিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়ে দিল ও তিনজন কে lock up থেকে ছাড়িয়ে নিল। ওদের ছাড়া পেতে দেখে নবুদা আরও জোরে চিত্কার শুরু করলো , "বড্ড বাড় , বাঁশের ঝাড় , আমায় চিনিস না তোরা , জায়গার খবর জায়গায়ে পৌছে দেব রে , পরিবর্তন নয় এবার হবে প্রত্যাবর্তন, তোদের ভাষায় পত্যাবত্তন রে…" সেই 'আনন্দ পাব্লিকেসন' সাপ্লাই করা পেটো ভাই এবার জগা কে রিকোয়েস্ট করলো বড়বাবুকে বলে যেন নবুদাকে ছাড়িয়ে নেওয়া হয় নাহলে হুলোকে তাসের ঠেকে মুখ দেখানো দায় হবে!! জগার আবার ভোটের আগে এই পেটো স্পেসালিস্টদের ইমার্জেন্সি কালীন ভিত্তিতে দরকার। যাই হোক সেই বৃহত্তর স্বার্থের কথা মাথায় রেখে নবুদাকেও দলের 'সচ্চরিত্র ও আদর্শবান ক্যাডার থুড়ি কর্মী' হিসেবে ছেড়ে দেওয়া হলো। ছাড়ার আগে বড়সাহেব বললেন , " জগাবাবুর কথা শুনে তোকে ছেড়ে দিলাম , যা এখন যা , হ্যাঁ এখানে এসে তুই যদি কিছু নিয়ে থাকিস তা হলে তা এখানেই রেখে চলে যাবি , বাইরে নিতে পারবি না । " নবুদা ততক্ষনাত সুবোধ বালকের মতন পকেট থেকে ছেড়া পাতা গুলো টেবিলের ওপর রেখে দিল , ওদিকে পাশে খোলা টাটকা আনন্দবাজার। কাকতালীয় হলেও শালা সেদিন-ই দেব , সন্ধ্যা রায় ও মুনমুন সেনের নির্বাচনে দাড়ানোর খবর চাউর করে ছাপা হয়েছে তাতে । ব্যাস একেবারে 'খাপে খাপে' খাপ পঞ্চায়েত । সব দেখে বড়বাবু তো বটেই , জগাও কিরকম জানি মস্তিষ্কে অক্সিজেন বিহিনের মত ভেবলে গেলো ।

পচা খবর পেয়ে চারটে লাড্ডু ও হুলো একটা বাসী রজনীগন্ধা ফুলের মালা নিয়ে হাজির হলো। স্টেশন চত্বরে ফাটিয়ে সম্বর্ধনা হলো নবুদার । সেলিব্রেসনের ভরপুর আয়োজন , খাসির চর্বিতে তৈরী লালমুখো আলুর দম , পাউরুটি আর বাংলু ফাংলু নয় গোটা দুটো ফুল বোতল ইংলিস । চার পাঁচ পেগ চড়িয়ে নবুদা বলল , "সালা বড়বাবু মালটা বহুত ইতর , নেহাত ফিল্ম ষ্টার গুলো ভোটে দাড়ালো তাই আমাকে ছেড়ে দিল, নাহলে ক্রিমিনাল কেস খেয়ে সারা জিন্দেগীটা ভেতরে পচে খতম হতাম ।" পচা খেপে গিয়ে বলল , " মালটার বাড়ি চিনি আমি । দাড়াও, আমূল বাটার লাগিয়ে আসছি , তুমি চিন্তা কোরনা। তোমার অপমানের বদলা লেবই ।" পচা বড়বাবুর বাড়ি গিয়ে মাঝরাতে গ্রিলের ফাঁক দিয়ে হাত বাড়িয়ে ঝাল আলুর দম খাওয়া পাতলা ''স্ববিষ্ঠা' ছড়িয়ে দিল বারান্দায়ে এবং সেই সেমি লিকুইড স্প্রেড-এর ওপর toppings হিসেবে ছিটিয়ে দিল কুচি কুচি করা তেঁতুল পাতা। কিছুক্ষনের মধ্যেই পুরো ব্যাপারটা একটা এঁটেল দুর্গন্ধযুক্ত টোটাল নুইস্যানস -এ পরিনত হলো ! পরের দিন বাকিটা কি হয়েছিল সেটা কমিসানারেটের কুকুর গুলোকেও জিজ্ঞেস করলেও জানা যাবে।

ওদিকে যখন থেকে শুনলো যে নবুদা সিনেমার জন্য ছাড়া পেয়েছে, তখন থেকেই হুলোর সিনেমা দেখার সুপ্ত বাসনা আবার জেগে উঠলো। আর না পেরে সে নেশাতুর নবুদার involuntary পারমিসন নিয়ে ছুটে একটা ডিভিডি প্লেয়ার ও সিডি নিয়ে এলো। পচাও ফিরে এসেছে মাখন লাগিয়ে। নবুদা জিজ্ঞেস করলো , " কি বই আনলি রে?"
হুলোর উত্তর , "ডিভিডি ওয়ালার কাছে একটাই সিডি ছিল , সেটাই দিয়ে দিল। নাম লেখা আছে..এই তো , নাম হচ্ছে শ্যা-ম-সঙ্গ। ..যাঃ কেলো ঠাকুর দেবতার বই হবে নাকি ?।"
পচা সেকেন্ড ইন কমান্ড হওয়ার দরুন হুলোর চেয়ে একটু হলেও বেশি পড়তে পারে ও ব্যাপারগুলো একটু বেশি বোঝে, তাই হুলোর থেকে সিডিটা তরি ঘড়ি করে কেড়ে নিল ।
আড়াই মিনিট ধরে চোখের সামনে সিডিটা দুলিয়ে দুলিয়ে শেষ মেশ আলোতে ফোকাস করে বলল , " ওটা সামসুং কোম্পানির সিডি রে গান্ডু । সিনেমার নাম তো কেচপেনে লেখা, হালকা ভাবে উঠে গেছে, দাড়া এই তো 'ধরতি প প প …ধরতি পুত্র মনে হচ্ছে….না দাড়া ধরতি পে ক্যাঁচরা বোধ হয় …. "

নবুদা নেশার পরে এই সব অশিক্ষেপানা একদম বরদাস্ত হয় না। খেচিয়ে উঠলো, "এদিকে দে , বাংলার মত ইংলিস গিললে শ্যামের সঙ্গে ধরতি পুত্র তো নাচবেই ..আর তাতে বেজায় ক্যাঁচরাও হবে ..শালা.. " এবার নবুদা ভালো করে দেখে বলল," ও তাই বলি , ইংলিশে লেখা। তাই তোমাদের এত মারপিট ! তা ইংলিশ গিলতে পারো, আর বলতে গেলেই puncture !"
নাহ সত্যি সত্যি পড়া যাচ্ছে না , কিন্তু নবুদা তবুও লাস্ট try হিসেবে একবার চেষ্টা করলো ," বুঝলি, বইটার বোধ করি বেশ বড় নাম , এই আজকাল যেরকম হয় আর কি। ডির তো পি কে চুর……মানে কোনো সিনেমা বা কোম্পানির ডিরেক্টর মাল খেয়ে লাট হয়ে গেছে…" পচা কিন্তু ঠিক কনভিন্সড হলো না , সে নবুদার কাছ থেকে সিডিটা নিয়ে পড়ছিল হটাত হুলো বলে উঠলো ,"আরে পিলেয়ারে লাগিয়েই দেখো না। " নবুদার lock up থেকে বেরোনোর পরে এই প্রথম কিছু একটা নিয়ে গর্ব হলো আর সেটা হচ্ছে হুলো থার্ড ইন কমান্ড হিসেবে পচার সেকন্ড ইন কমান্ডশিপ কে ওপেন এবং ফেয়ার চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছে । যা হোক সবে হুলো নবুদার কাছ থেকে প্রশংসা কুড়িয়ে টুরিয়ে সিডি তা প্লেয়ার-এ লাগিয়েছে অমনি…. কারেন্ট হুশ!!!

কিচ্ছুক্ষন অপেক্ষার পর পচা ঘুমিয়ে পরেছিল , হুলো motivated তাই ঢুলছিল। সুধু নবুদা ঘুমোয়নি কারেন্ট না আসা অব্দি। কারেন্ট আসতেই নবুদা সিডিটা তাড়াতাড়ি জায়গা মতন লাগালো।
প্রথমে কোনো শব্দ নেই। 'A' …..উরিব্বাস এতো দেখি অ্যাডাল্ট গল্প …এই যাঃ Adult ব্যাপার নিয়ে রোমাঞ্চ বোধ করার আগেই ওদিকে সিনেমার নাম হাওয়া । সুধু ছাপা অক্ষরে disclaimer গুলো পর পর রোল কল দিচ্ছে .. no coincidence with real life , no smoking no alcohol , শেষে no animals were hurt দেখা গেল। একবারে no টাকে কমন রেখে ব্র্যাকেটে (coincidence, cigarette, alcohol , animal hurting ) দিলেই তো হত !! বা সবজে স্ক্রীনে হলদে রঙ্গে 'NO বাওয়াল্স' দিতে হত আরো স্মার্ট করতে গেলে।

বলতে বলতে এসে গেল হলুদ ব্যাকগ্রাউন্ড-এ গোলাপী তিলক – বালাজী ফিল্মস সাথে বাঁশির শব্দ, তারপর জ্যাজ এর সাথে mlt ফিল্মস। নেক্সট সমুদ্রের ঢেউয়ের শব্দের সাথে vertex মোশন (B-tex লোশন এর সিস্টার কনসার্ন নয় তো !) ও বাব্বা এর পরে পার্টনারশীপ-এ দেখি কেরোসিনের লাইন – মিডিয়া, অনলাইন , অফলাইন , sideline , ডিজিটাল , এনালগ , outdoor , indoor , emotional , extramarital (নাহ শেষের দুটো আমার তরফ থেকে সংযোজন নবুদার হয়ে , হলে মন্দ হয় না ) এর পর Music অন T Series । এবার sure নাম দেখাবে। লেও ঠেলা নাম কই ? এতো এবারে আবার মিশকালো স্ক্রিন-এ ক্যাটক্যাটে লাল রঙ্গে জার্মান সাহেব Nietzsche-এর দর্শন ঝাড়ছে "You must have chaos within you to give birth to a dancing star" জার্মান রা শুনেছি oktoberfest-এ ঘড়া ঘড়া বিয়ার খেয়ে নাচ টাচ করে থাকে..কিন্তু তার সাথে এই সিনেমার কি সম্পর্ক ? আছে নিশ্চই,একটা বাচ্চা মেয়ের ছোট্ট ডায়ালগ-এর(আম্মা ……..গাঁও মে সিনেমা ) পরে সেটা আরো স্পষ্ট হয়ে গেল…..'আরে রে রে রে ..নাকে মুখে নাকে মুখে' বলে বেজায়ে ঝিঙ্কু music চালু হয়ে গেল …বিদ্যা বালন , ইমরান হাশমি , নাসিরুদ্দিন শাহ ….ওদিকে হুলো উঠে গামছা টেনে 'নাকে মুখে' গোঁজার মতন নেচে চলেছে…বোধহয় ইংলিস টানার পর Nietzsche ভর করেছে ….পচা চোখ রগড়ে উঠে , পোর্টেবল টিভির দিকে জিভ বার করে তাকিয়ে আছে …….এইবার কাকা সিনেমার নাম পরিষ্কার ভেসে উঠবে , একেবারে দেওয়াল লেখনের মতন স্পষ্ট….(এই যাঃ এখানেও কারেন্ট চলে গেল বোধহয়…. নাকি ওরা আমার লাইন কেটে দিল !!!)

নবুদার পত্যাবত্তন
  • 0.00 / 5 5
0 votes, 0.00 avg. rating (0% score)

Comments

comments