সময়ের বিচারে হয়ত খুবই সংক্ষিপ্ত তবু বড় কম সময় নয় চার চারটে বছর। এই চার বছরে চর্যাপদ বেশ খানিকটা পথ এগিয়েছে। অবশ্য পথ চলার এখনো তার বহু বাকি। হয়তো বা শেষই নেই, হয়তো যা পেরিয়েছে তা সামান্যই।

প্রথম যখন চর্যাপদ আন্তর্জালের জগতে প্রবেশ করে তখন সেভাবে বলতে গেলে ভারতবর্ষে বাংলা নিয়ে লেখালেখি করার জায়গা অনেকটাই সঙ্কুচিত বললেই চলে বা বলা যায় সংখ্যায় অনেক কম। বাংলাদেশের ব্লগের পসার তখন অনেক বেশি। সেসবেরই আনাচে কানাচে ঘুরে ফিরে আমাদের মনে হল, এবার একটা বাংলা ব্লগ তৈরী করা যাক। যেখানে বাঙালীরা নিজের মনের মতো করে উজাড় করে দিতে পারবে। আলোচনা করবে সাহিত্য, শিল্প, সমাজ, বিজ্ঞান, দর্শন প্রভৃতি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে, খোলা মনে।

চেষ্টা ছিল নিতান্তই শিশুসুলভ। সেদিনও ছিল, আজও আছে। সেদিনও অজানা ছিল, আজও তাই রয়ে গেছে।  কেমন করে ব্লগের সম্পাদনা করতে হয়, কেমন করে মানুষকে কাছে টেনে লেখাগুলো পড়াতে হয়, কেমন করে মানুষকে দিয়ে লিখিয়ে নিতে হয়, পড়িয়ে নিতে হয়, সে বিষয়ে আমরা আজও অজ্ঞ। যে যেমন করে চর্যাপদকে চায় সে সেভাবেই তাকে আপন করে নিক, এইটুকুই ছিল চাহিদা।

আজ যখন চর্যাপদের পুরনো পাতাগুলো ঘুরে ঘুরে দেখা যায়, তখন দেখে বেশ ভালোই লাগে যে বহু জ্ঞানী-গুণী বিদ্বজন আজ আমাদের মাঝে স্বয়ংক্রিয় ভাবেই অংশগ্রহণ করেছেন, নিয়মিত লেখালিখি করেছেন, সাধুবাদ বা মতামতের তোয়াক্কা না করেই। লেখালেখিটা তাঁরা ভালবাসা থেকেই করেছেন। ফলত চাহিদা অনেকাংশেই পূর্ণ।

এইসব ছোট্ট ছোট্ট চাহিদা এবং পূরণ এই নিয়েই আমরা পা রাখলাম পাঁচে। তার অঙ্গ হিসেবে প্রতি বছরের মত চার-কেও ফিরে দেখা।
 

মাত্র ৩ মেগাবাইটের পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন নীচের "ডাউনলোড" লিঙ্কে। অনলাইন পড়ার ব্যবস্থাও রয়েছে।  

পড়ুন আর বন্ধুদের পড়ান। কেমন লাগল জানাতে ভুলবেন না।

ডাউনলোড

ডাউনলোডের লিঙ্কটি থেকে অনলাইন পড়ার চেষ্টা করলে ফন্ট ভেঙে যাবার সম্ভাবনা। অনলাইন পড়তে নীচের লিঙ্কে ক্লিক করুন। এই অনলাইন ভিউয়ার যেকোনো পাতার ওপর সিঙ্গল ক্লিক করলেই সেই পাতাটি বড় আকারে দেখতে পাবেন। ফুল স্ক্রিনে পড়ার ব্যবস্থাও আছে।

অনলাইন পড়ুন

 

 

বাছাই চর্যাপদ ২০১৬
  • 0.00 / 5 5
0 votes, 0.00 avg. rating (0% score)

Comments

comments