বেঁচে থেকে কী আর লাভ বলো?
সেই তো রোজ
বুড়ো শালিকের রোজনামচা।
শীতকালের সেই পাতা ঝরে পড়া।
মঞ্জরী, বিতান কিংবা তিতাসদের
সেই পাশ বা ফেলের খবর।
চটজলদি তৈরি করে নেওয়া
রোজকার বাজারফর্দ।


ঐ একই কাসুন্দি ঘাটতে ঘাটতে
জন্ম মৃত্যু বিবাহ কি অন্নপ্রাশনের
খবর শুনে, হেসে কিংবা কেঁদে
আবার নতুন করে টাল সামলে নেওয়া।


বসন্তে আবার জানি কোকিল গাইবে গান।
উঠবে কালবৈশাখীর ঝড়।
আমার সর্বাঙ্গ হয়তো আবার
ভরে উঠবে জ্বালা যন্ত্রণায় –
মুখে কুলুপ এঁটে সইতে হবে সব।
তারপর জানি বৃষ্টি নামবে।
একটা বছরের আবারও হবে অবসান।


অনভিজ্ঞতাগুলো কুড়োতে কুড়োতে
আর কত মাইল হাঁটতে হবে!
আমার থেকে পৃথিবীর যেটুকু পাবার
তার সবটুকু তো নিঙড়ে নিয়ে নিয়েছে সে।
কোনও কৃপণতা তো করিনি কখনও।


তবু কেন এখনও বাঁচিয়ে রাখল আমায়?
বেঁচে থেকে কী বা লাভ বলো?
তবে কি এখনও আমার কাছ থেকে
আরো, আরও অনেক কিছু
পেতে চায় সে?

বেঁচে থেকে
  • 4.00 / 5 5
1 vote, 4.00 avg. rating (81% score)

Comments

comments