মাসটামশাই ষাট পেরনো চোখটি তুলে
দেখুন আমি হচ্ছি ক্রমে বাউন্ডুলে !
রাগের মাথায় কারোর ক্ষতি করিই যদি ,
সামলে দেবেন না হয় বলে -" আমার ছেলে" ।
 
মাসটামশাই, এই যে আমার আশির ঘরে ,
বিভাস বাবু গায়ের জোরে দশ কেটেছে,
উনার চোখে নীলাঞ্জনের বাষট্টিটাই
সূর্য জানেন ? বাদবাকি সব হারিয়ে গেছে ।
 
মাসটামশাই আপনি বলেন সবাই সমান,
হাসির ভিতর আশীর্বচন পুরেই খালাস ;
পায়ের নীচে একটু করে সরছে মাটি ,
পাওয়ার-চোখের উলটে যাওয়া আওয়ার -গেলাস ।
 
 
মাসটামশাই, আছেন কিনা একটু বলুন !
থাকতে যদি নাও বা পারেন, তাও ক্ষতি কি?
রসদ কিম্বা বারুদ যাহোক, জোগাড় হবেই -
তারপরে তো ভূগোল ক্লাসের জোয়ান নদী ।
 
নদীর মতোই বাঁধ ভেঙে বা বাঁধ এড়িয়ে
নিজের পথেই এগিয়ে আবার ফেরত এলে ,
ঠাণ্ডা জলের পাত্র রাখুন মাসটামশাই ,
চোখটি ধুয়ে বলবেন তো – " আমার ছেলে" ?

মফঃস্বলের চিঠিঃ মাস্টারমশাই
  • 4.00 / 5 5
1 vote, 4.00 avg. rating (81% score)

Comments

comments