সন্ধ্যালোকে সাদা মেঘের রূপের ছটায় মুগ্ধ হয়ে
জিজ্ঞেস করলাম, বন্ধু হবে?
মুচকি হেসে নিরুত্তর-
সহসা দমকা হাওয়া অদৃশ্য অবয়ব
অনন্ত সময় অপেক্ষা-

শেষ বিকেলের শারদ আকাশ
মুখ লুকোনো ভীষণ কঠিন,
চার সখির কৈশোরের উচ্ছলতা,
কিন্তু, কালকে দেখা মেঘবালিকা কই?
আবার অনন্ত সময় অপেক্ষা-

তন্দ্রাভরা কাকভোরের কঠিন সংকল্প-
হাজার মুখের ভিড়েও
আজ ঠিক খুঁজে নেব
পরশু সন্ধ্যার সেই মুচকি হাসি মেঘবালিক।
কালের পরে পরশু, আবার সেই অনন্ত সময় অপেক্ষা-

স্নিগ্ধ ভোরের সিঁদুর আকাশ
হঠাৎ হাজির মুচকি হাসি মেঘবালিক,
উচ্চ স্বরে চেঁচিয়ে উঠি,
এতদিনেও উত্তর দিলেনা যে?
ঘুম ভাঙতেই আবার নিখোঁজ সেই স্বপ্নে দেখা মেঘবালিকা।

আজ পেরিয়ে কাল, কালের পরে পরশু
মাস পেরিয়ে বছর পঞ্চঋতু পার-
অনেক আগের চেনা হাসি, অচেনা মুখ, না শোনা কণ্ঠ-
বন্ধু আমায় চিনতে পারো?
মাথার ওপর দলছুট একটুকরো কৃষ্ণকালো বর্ষামেঘ।

বর্ষামেঘ অঝর ধারায় ভিজিয়ে দিল
মুচকি হাসি ফিসফিসিয়ে বলল-
পঞ্চঋতু পার রূপ বদলে কৃষ্ণকালো,
চিনতে পারো? তোমার সেই শারদশুভ্র মেঘবালিকা?
সেদিন কিন্তু বন্ধু হতে চেয়েছিলে?

বর্ষামেঘের অঝর ধারা মুঠোয় ধরে
আকাশপানে চেয়ে, চেঁচিয়ে বলি-
ঠিক চিনেছি, তুমিইতো সেই মুচকি হাসি,
বর্ষা শেষে রঙ হারিয়ে, আবার সেই শারদশুভ্র-
আমায় রাখবেতো মনে, আগামী সেই শারদ সন্ধ্যায়?

হঠাৎ সেই এলোমেলো দমকা হাওয়া
ঘরে ফিরল সেই দলছুট একটুকরো কৃষ্ণকালো বর্ষামেঘ,
সূর্যকে সম্মুখ সমরে হারিয়ে দিয়ে
কৃষ্ণকালো বিজয়কেতন উড়িয়ে দিল আকাশ জুড়ে,
আজও উত্তর পেলামনা, আবারও সেই অনন্ত সময় অপেক্ষা-

মেঘবালিকা
  • 0.00 / 5 5
0 votes, 0.00 avg. rating (0% score)

Comments

comments