সোনালী সবুজ ঢেউ খেলানো মাঠ দেখে
কেঁদেছো কোনও দিন?

বা, কালচে নীল রাতের বুকে
রক্ত-লাল চাঁদ দেখে?

অরণ্যের শুরুতে কারা যেন
বসতে বলে গেছে।
শ‍্যাওলা পড়া একটা বেঞ্চ
কতকাল অপেক্ষায়,
একাই বুড়িয়ে যায়..

সেই বুড়োর কাছে
মন খুলেছো কখনো?
শুনতে চেয়েছো তার দিনকাল?

আমি তো চাইনি,
আমরা চাই না!

গাছের ফাঁকে হাওয়ায় হাওয়া
কতকিছু বলে,
কোটি বছরের গল্প,
দাঁড়িয়ে শুনিনি।
পা ডোবাইনি শিশির সমুদ্রে,
গায়ে মাখিনি রোদজল,
দূরে দূরে সরে গেছি ক্রমশ!

কার কাছে যেতে চাই,
কেন চাই, কি পাবো পৌঁছলে..
এসব নিয়েই দিন রাত হয়,
রাত ফুরোলে আরেকটা দিন,
ঠিক আগের মতোই!

ভোর দেখি না,
কান ঢেকে রাখি,
যেন কোনও পাখি
দীর্ঘদিনের শীতঘুম না ভাঙায়!
ঘুমিয়ে হাঁটি,
হাঁটতে থাকি, পাহাড় ডিঙোই..
নদী পেরোই,
পৌঁছই না কোথাও!

তারা ভরা আকাশের নীচে,
দুদণ্ড বসি, তার থেকে;
বেঞ্চটা আজও কিন্তু
অপেক্ষায়,
আমরা জিরোবো বলে..

তারা ভরা আকাশের নীচে..
  • 0.00 / 5 5
0 votes, 0.00 avg. rating (0% score)

Comments

comments